আমি কখনো বিসিএস পরীক্ষা দেইনি

0
7

বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনে (পিএসসি) প্রশ্নপত্র ফাঁসকাণ্ডে দেশজুড়ে উঠেছে সমালোচনার ঝড়। এরই মধ্যে হঠাৎ করেই আলোচনায় সংগীত-অভিনয়শিল্পী তাহসান রহমান খান। তার মায়ের নাম জড়িয়েও নানা অপপ্রচার হচ্ছে। এতে সামাজিকমাধ্যমে নেটিজেনদের সমালোচনার মুখে পড়েছেন এই শিল্পী। তথ্য যাচাই না করেই জনপ্রিয় এ গায়ককে নিয়ে আপত্তিজনক মন্তব্য করছেন তারা।

তাহসানের মা সাবেক পিএসসি চেয়ারম্যান ড. জিনাতুন নেসার ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিসিএসে তাহসান প্রথম হয়েছেন এমন দাবিও করা হয়। অবশেষে বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন তাহসান।
সম্প্রতি এক গণমাধ্যমকে তাহসান জানান, তার বিসিএস দেওয়ার বিষয়টি পুরোটাই ভুয়া। তাহসানের কথায়, ‘আমি কখনোই বিসিএস দেইনি। ২৪তম বিসিএসে পররাষ্ট্র ক্যাডারে প্রথম হওয়া তো প্রশ্নই আসে না।’
মায়ের নাম জড়ানোর বিষয়ে জানতে চাইলে এই তারকা বলেন, ‘এখানে একটা ভুল হচ্ছে। এই ড্রাইভার অফিসের অন্যান্য ড্রাইভারদের মতোই একজন। তিনি আমার মায়ের ড্রাইভার নন।’

এদিকে, সোশ্যাল মিডিয়ায় রিউমার স্ক্যানার জানিয়েছে ২৪তম বিসিএসে ভাইভায় তাহসানের বাদ পড়ার বিষয়টি সত্য নয়। সেখানে বলা হয়েছে, মূলত ২০০৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি ২৪তম বিসিএস’র প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। তবে প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে ৩ মার্চ পরীক্ষাটি বাতিল করে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (বিপিএসসি)। পরবর্তী সময়ে পুনরায় ২৪তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় এবং লিখিত পরীক্ষা ও ভাইবার মাধ্যমে নিয়োগ কার্যক্রম শেষ হয়।

প্রসঙ্গত, বিসিএসের প্রশ্ন ফাঁসে জড়িত রয়েছেন বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) তিন কর্মকর্তা ও সাবেক গাড়িচালক সৈয়দ আবেদ আলীসহ ১৭ কর্মকর্তা। ইতিমধ্যে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে মূল আলোচনায় গাড়িচালক সৈয়দ আবেদ আলী। সেই আবেদ আলীর সূত্র ধরেই সামাজিক মাধ্যমে পরোক্ষভাবে নাম চলে আসে তাহসানের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here