‘৭ মার্চের ভাষণে সংবিধানের চার মূলনীতি সুস্পষ্টভাবে ফুটে উঠেছে’

0
129

মিরর বাংলা নিউজ  ডেস্ক: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণে জাতীয়তাবাদ, সমাজতন্ত্র, গণতন্ত্র এবং ধর্মনিরপেক্ষতা বাংলাদেশের সংবিধানের এই চার মূলনীতি সুস্পষ্টভাবে ফুটে উঠেছে বলে মন্তব্য করেছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ।

তিনি বলেন, ভাষণে বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতীয়তাবাদের কথাই বলেছেন। তিনি বাংলার মানুষের অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক মুক্তির কথা বলেছেন। তাঁর বক্তৃতায় বাঙালি জাতির উপর তৎকালীন পশ্চিম পাকিস্তানি শাসকদের নির্যাতনের করুণ বর্ণনা দিয়েছেন।

আজ সোমবার (২০ নভেম্বর) বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির ২১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং সংবিধান’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় ধারণা পত্র উপস্থাপন কালে ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ও আইন বিভাগের প্রধান ড. তুরিন আফরোজ এসব কথা বলেন।

ধারণা পত্র উপস্থাপন কালে তুরিন আফরোজ বলেন, বঙ্গবন্ধু তাঁর ভাষণে বাঙালি জাতির গণতান্ত্রিক অধিকারের দাবি তুলেছেন। বঙ্গবন্ধুর ভাষণে আমরা শোষণমুক্ত সমাজতন্ত্রের প্রতিফলনও দেখতে পাই। তিনি তাঁর বক্তব্যে একদিকে যেমন বাঙালি জাতির অর্থনৈতিক মুক্তির দাবি জানিয়েছেন, তেমনি অসহযোগ আন্দোলনে শ্রমজীবী গরিব মানুষের কথা উল্লেখ করেছেন।

তুরিন আফরোজ আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু তাঁর ৭ মার্চের ভাষণে ধর্মনিরপেক্ষতার স্বাক্ষর রেখেছেন। তিনি তাঁর বাঙালি জাতীয়তাবাদ চেতনার প্রতিষ্ঠায় হিন্দু, মুসলমান, বাঙালি, অবাঙালি সবার কথাই বলেছেন।

ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগ আয়োজিত এ আলোচনা সভা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি লাউঞ্জে অনুষ্ঠিত হয়।

ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফখরুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস, এমপি এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম এম শহিদুল হাসান।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY