এমপি লিটন হত্যা: এক সমন্বয়ক পলাতক, আরেকজন নজরদারিতে

0
140

মিরর বাংলা নিউজ  ডেস্ক: গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সাবেক এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যার অন্যতম সমন্বয়ক সাবেক আওয়ামী লীগ নেতা চন্দন কুমার সরকার পলাতক রয়েছেন। আরেক সমন্বয়ক সুবল চন্দ পুলিশ নজরদারিতে রয়েছেন। পুলিশ একথা জানিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, এমপি লিটন হত্যায় জড়িত গ্রেফতার হওয়া মেহেদী হাসান, শামীম মণ্ডল, শাহীন, রানা ও কাদের খাঁনের গাড়ি চালক আব্দুল হান্নানের স্বীকারোক্তিতে অন্যতম সমন্বয়ক চন্দন কুমারের নাম উঠে আসে। উপজেলা আ’লীগের দফতর সম্পাদক বামনডাঙ্গার মনমথ গ্রামের কাঠ মিস্ত্রি সুশীল চন্দ্রের ছেলে চন্দনকে পুলিশ খুঁজলে সে পালতক। অপর সমন্বয়ক চন্দনের ভগ্নিপতি কাসাই সুবল চন্দ্র পুলিশের নজরদারিতে রয়েছে। সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)আতিয়ার রহমান জানান, কাদের খাঁনসহ হত্যাকাণ্ডের চার কিলারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী চন্দন কুমার ও তার ভগ্নিপতি সুবল চন্দ্র হত্যার সমন্বয়কারী। চন্দন ভারতে পালিয়ে গেছে। তবে সুবল চন্দ নজরদারিতে রয়েছে। বামনডাঙ্গা ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক নাদিম হোসেন বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক চন্দনের সঙ্গে কিছু সংখ্যক রাজনৈতিক পরিচয়ধারী সন্ত্রাসীর সঙ্গে ওঠাবসা ছিল। বামনডাঙ্গা হলমোড়ের রেলগেট সংলগ্ন জাসদ অফিসে বসে এমপি লিটন বিরোধী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছিল। প্রসঙ্গত, ২১ ফেব্রুয়ারি হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী ও অর্থ যোগানদাতা সাবেক এমপি কর্নেল (অব.) আব্দুল কাদের খাঁন গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ তাকে ১০ দিনের রিমান্ড নেয়। রিমান্ডের চতুর্থ দিন শনিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) হত্যায় সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মামলার তদন্তকরী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবু হায়দার মোহাম্মদ আশরাফুজ্জামান বলেন, ভবিষ্যতে রাজনৈতিক ফায়দা নেওয়ার উচ্চাভিলাষে এমপি লিটনকে হত্যার পরিকল্পনা করেন কাদের খাঁন। এছাড়া হত্যার সব আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। আগামী ১৫/১৬ দিনের মধ্যে কাদের খাঁনকে প্রধান আসামি করে এমপি লিটন হত্যার চার্জশিট প্রদান করা হবে বলে রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক জানান। এ বিষয়ে ওসি জানান, কাদের খাঁনের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী আরও একটি পিস্তলের সন্ধানে তার বাড়িতে তল্লাশি অভিযান চালানো হয়। কিন্তু এখনও উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

সূত্র: বাংলাট্রিবিউন

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY