‘ভাত দে মা, আমরা ক্ষুধার্ত শিক্ষক সন্তান’

0
233

মিরর বাংলা নিউজ  ডেস্ক: দেশের  নন-এমপিও কয়েক হাজার স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি স্কুলে কর্মরত এক লাখের বেশি শিক্ষক-কর্মচারী দীর্ঘদিন ধরে বিনা বেতনে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। তাদের সন্তানরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে  আবেদন করেছে, ‘ভাত দে মা, আমরা ক্ষুধার্ত শিক্ষক সন্তান।’

বুধবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘ভাত দে মা, আমরা ক্ষুধার্ত শিক্ষক সন্তান’ ব্যানারে আয়োজিত নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এমপিও ভুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছেন নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও কর্মচারীরা।

মানববন্ধনে শিক্ষক নেতারা বলেন, দেশে একের পর এক প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ হচ্ছে। কিন্তু নন-এমপিও প্রতিষ্ঠানগুলো এমপিও ভুক্ত হচ্ছে না। ফলে গত ১০ থেকে ২৬ বছর পর্যন্ত আমরা আমাদের সন্তানদের মুখে সঠিক সময়ে ভাত তুলে দিতে পারছি না। আমরা দীর্ঘদিন ধরে মানবেতর জীবন যাপন করছি।

নেতারা আরও বলেন, এর আগে দীর্ঘদিন ধরে আমাদের ন্যায্য দাবি আদায়ে ধারাবাহিক আন্দোলন হয়েছে। সর্বশেষ গত ২২ নভেম্বর বর্তমান সরকারের শরিক দলের একজন এমপির আশ্বাসে আমরা আন্দোলন বন্ধ করে দেই। এতদিনেও আমাদের দাবি পূরণ হয়নি। সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ বিষয়ে উদ্যোগ নিলেও, তা কোনও এক অজানা কারণে আবার থেমে যায়।

নেতারা তাদের বক্তব্যে আরও বলেন, আমরা এভাবে বিনা বেতনে আর কতদিন শিক্ষার হাল ধরে থাকবো। আমরা দেশের মেরুদণ্ড গড়ার কারিগর। সেই আমরাই মানবেতর জীবন যাপন করি।

শিক্ষকরা মানববন্ধনে দুটি দাবি জানান। স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি করতে হবে এবং যোগদানের তারিখ হতে চাকুরির বয়স গণনা করতে হবে।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ মো. এশারত আলী, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ ড. বিনয় ভূষণ রায়। এছাড়া, কয়েকশ শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, সন্তানদের নামে ব্যানার করা হলেও মানববন্ধনে কোনও সন্তানের উপস্থিতি দেখা যায়নি।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY