হাতীবান্ধায় ছাত্রী নিবাসের ভিতরে গাঁজার চাষ !

0
257

লালমনিরহাট প্রতিনিধি:শাহিনুর ইসলাম প্রান্ত

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় পারুলিয়া তফসিলী দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে তিস্তাকলি ছাত্রী নিবাসের ভিতরে গাঁজার চাষ পুলিশ কর্তৃক প্রায় ১৫ ফিট লম্বা গাঁজার গাছ উদ্ধার করা হলেও রহস্য জনক কারণে কোন আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়নি। সচেতন মহলের মাঝে প্রশ্ন উঠেছে।
জানাগেছে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার হাতীবান্ধা থানার এস আই আবু ্মুসা ফোর্স সহ উক্ত ছাত্রী নিবাসের ভিতরে অভিযান চালিয়ে প্রায় ১৫ ফিট লম্বা জীবিত গাঁজার গাছ কর্তন পূর্বক উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। যাহা পরবর্তীতে কয়েক দিন গত হলেও মামলা দায়ের সহ কোন রুপ আইনি প্রক্রিয়া গ্রহন করা হয়নি। বিষয়টি নিয়ে সচেতন মহলের প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।
এ বিষয়ে থানায় যোগাযোগ করা হলে অফিসার্স ইনচার্জ রেজাউল করিম বলেন যে, বিষয়টি শিক্ষক ও বিদ্যালয়ের বিষয়, কার বিরুদ্ধে মামলা ও আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করি এ ব্যাপারে ভাবছি , সিদ্ধান্ত নিতে আরও সময় লাগবে।
প্রতিনিধিকে পাটিকাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান শফিউল আলম রোকন জানান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা ও জ্ঞান অর্জনের জন্য শিক্ষার্থীরা আসে, যে জ্ঞানের আলোকে দেশ ও জাতি পরিচালিত হতে পারে। তাছাড়াও শিক্ষকরা মানুষ গড়ার কারিগর নামে পরিচিত। সেখানে চারিদিকে দেয়ালে ঘেরা সচেতন ও শিক্ষিত মহলের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাদকের চাষ হবে এটা কোন সমাজ কিংবা আইন মেনে নিতে পারে না। বিষয়টি নিয়ে পরিচালনা কমিটি নিরব কেন ? এ ব্যাপারে পুলিশের ভূমিকা রহস্যজনক কেন বলে তিনি উল্লেখ করে আইনি ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য সংশ্লিষ্ট পুলিশ প্রশাসনসহ সকল উর্দ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট দাবী জানান।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অনিল চন্দ্র এ প্রতিনিধিকে জানান, গাঁজা দেখতে কি রকম আমি চিনি না , তাছাড়াও ঐ দিন ছিল ছুটির দিন প্রতিষ্ঠান বন্ধ আমিও ছিলাম এলাকার বাহিরে। পুলিশ কর্তৃপক্ষ গাঁজার গাছটি নিয়ে গেছে বিষয়টি আমাকে জানানো হয়নি। একইভাবে বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদের সভাপতি উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বদিউজ্জামান ভেলু একই কথা জানান |

 

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY