রাজশাহী প্রাণের শহরে বসবে বাঙালির মিলনমেলা

0
180

মিরর বাংলা নিউজ  ডেস্ক: বাঙালির হাজার বছরের ঐতিহ্য, প্রাণের উৎসব, জাতীয় উৎসব পয়লা বৈশাখ। জীর্ণতাকে বিদায় জানিয়ে প্রাণে প্রাণে নতুনের পরশে সাড়া জাগাতে এখন উন্মুখ হয়ে পড়েছে রাজশাহী। মহানগরীতে এবার বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে বর্ষবরণ হতে যাচ্ছে বৃহস্পতিবার।

প্রাণের শহরে এদিন বসবে বাঙালির মিলনমেলা। রাজশাহী সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে মহানগরীর ফুদকিপাড়া নদীর ধারে মুক্ত মঞ্চে চৈত্রসংক্রান্তি ও বর্ষবরণ উপলক্ষে দুই দিনব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে আগামীকাল বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় রয়েছে বর্ষবিদায় অনুষ্ঠান।

আগামী বৃহস্পতিবার সকাল ৭টায় থাকছে বর্ষবরণের মূল অনুষ্ঠান। সকাল ৮টায় রয়েছে পান্তা-ইলিশ আপ্যায়ন ও সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। রাজশাহী সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট আগামীকাল ১৩ এপ্রিল সূর্যাস্তের সাথে সাথে মহানগরীর আলুপট্টি পদ্মার ঘাট বটমূলে বর্ষবিদায়ের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। ১৪ এপ্রিল সূর্যোদয়ের পর মহানগরীর আলুপট্টি পদ্মার ঘাট বটমূলে আয়োজন করবে বর্ষবরণের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। রাজশাহী সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক দিলিপ কুমার ঘোষ ‘মিরর বাংলা নিউজ’ কে জানান, তাদের মূল আকর্ষণ থাকবে মঙ্গল শোভাযাত্রা। পহেলা বৈশাখের দিন সকাল সাড়ে ৭টায় মহানগরীর আলুপট্টি বঙ্গবন্ধু চত্বর থেকে বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করবেন তারা। এছাড়া আগামী ১৪ ও ১৫ এপ্রিল প্রতিদিন বিকেল ৫টায় মহানগরীর ভুবনমোহন পার্কে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করবেন এবার। এদিকে, পুরো বাঙালিয়ানা আমেজে বিপুল উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে রাজশাহীতে বর্ষবরণের লক্ষ্যে এবার ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। পহেলা বৈশাখের চিরন্তন উৎসবকে ঘিরে নতুন সাজে এরই মধ্যে সেজেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগ। মহানগরী জুড়ে মূল উৎসব থাকলেও কেন্দ্র বিন্দু হিসেবে  থাকছে চারুকলা বিভাগই। তাই এখন শেষ মুহূর্তের নানা আয়োজনকে সামনে রেখে ফুরসত নেই এ বিভাগের শিক্ষার্থীদের। মঙ্গল শোভাযাত্রার প্রস্তুতিও প্রায় শেষ হয়েছে। এছাড়া আনন্দঘন পরিবেশে পহেলা বৈশাখ উদযাপনে এবার ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে রাজশাহী জেলা প্রশাসন। কর্মসূচি অনুযায়ী বৃহস্পতিবার সাকাল সাড়ে ৭টায় রাজশাহী গভ: ল্যাবরেটরি স্কুল থেকে বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হবে। এটি বিভিন্ন সড়ক ঘুরে রাজশাহী শিশু একাডেমিতে গিয়ে শেষ হবে। বিকাল ৩টায় শিশু একাডেমিতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, দিনব্যাপী বৈশাখি মেলা অনুষ্ঠিত হবে। অপরদিকে বাংলা নববর্ষ উদযাপনের লক্ষ্যে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে রাজশাহী মহানগর পুলিশ। একদিন আগে থেকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হবে গোটা মহানগরী। বর্ষবরণের অনুষ্ঠানস্থান ছাড়াও আশপাশের এলাকায় পুলিশ মোতায়েন থাকবে। সাদা পোশাকে কাজ করবেন বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা। যৌথভাবে টহল দিবে র‌্যাব ও পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা। রাজশাহী মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার সরদার তমিজ উদ্দিন আহমেদ জানান, বুধবার থেকেই মহানগরীর নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হবে। মহানগরবাসী যেন নিরাপদে স্বাচ্ছন্দে বর্ষবরণের উৎসব উদযাপন করতে পারেন সেজন্য সম্ভভ সকল পদক্ষেপ এরই মধ্যে নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগার, মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, শিশু পরিবার, শিশু সদন উন্নতমানের ঐতিহ্যবাহী বাঙালি খাবারের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। শিশু পরিবারে শিশুদের নিয়ে ঐতিহ্যবাহী বাঙালী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, কারাবন্দিদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়াও কয়েদিদের তৈরী বিভিন্ন পণ্য সামগ্রির প্রদর্শনীর ব্যবস্থা থাকবে। কর্মসূচী অনুযায়ী এদিন সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্ব-স্ব ব্যবস্থাপনায় জাঁকজমকপূর্ণভাবে বাংলা নববর্ষ উৎযাপন করবে। শোভাযাত্রা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ দিনভর নানা কর্মসূচি রয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগে। বরেন্দ্র গবেষণা জাদুঘর, শহীদ কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যান, জিয়া শিশু পার্ক সকাল-সন্ধ্যা সকলের জন্য বিনা টিকিটে উন্মুক্ত থাকবে। এছাড়া রাজশাহী ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী কালচারাল একাডেমি নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY