বিদেশে টাকা জমানোর তথ্য নাকচ অমিতাভ,ঐশ্বরিয়ার

0
305

ভারতের বিখ্যাত অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন অফশোর কোম্পানির মাধ্যমে কর ফাঁকি দিয়ে বিদেশে টাকা জমিয়েছেন বলে যে খবর এসেছে তা অস্বীকার করেছেন তিনি।

দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস পত্রিকার খবরের বলা হয়েছে, মিস্টার বচ্চন ১৯৯৩ সালে অন্তত চারটি কোম্পানিতে নিযুক্ত হয়েছিলেন যেগুলো ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ এবং বাহামায় নিবন্ধিত।

সম্প্রতি “পানামা পেপার্স” নামে পরিচিতি পাওয়া যে গোপন দলিলপত্র ফাঁস হয়েছে, সেখানে ৫০০ ভারতীয়র নাম উঠে এসেছে। তাদের মধ্যে অমিতাভ বচ্চন এবং তার পুত্রবধূ ঐশ্বরিয়া রাইয়ের নামও রয়েছে।

ক্ষমতাধর রাজনীতিক থেকে শুরু করে নামকরা সেলিব্রেটি- অনেকের কর ফাঁকির গোপন তথ্য বেরিয়ে এসেছে এসব দলিলপত্রে। পানামার একটি লিগ্যাল ফার্ম ‘মোসাক ফনসেকা’ থেকে এসব গোপন দলিল ফাঁস হয়ে যায়।

দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বলছে, মন্তব্যের জন্য অনুরোধ সত্ত্বেও প্রাথমিকভাবে মিস্টার বচ্চন রাজি হননি, তবে তিনি একটি বিবৃতি দিয়ে কোন ধরনের সম্পৃক্ততার অভিযোগ নাকচ করেছেন।বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, “আমি কখনোই এমন কোন প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ছিলাম না। সম্ভবত কেউ আমার নামের অপব্যবহার করেছে”। আইন অনুসারে সব ধরনের কর পরিশোধ করে থাকেন বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

এদিকে পত্রিকাটির খবরে আরো বলা হয়, ২০০৫ সালে ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপে নিবন্ধিত একটি প্রতিষ্ঠানে ঐশ্বরিয়া রাই এবং তার পরিবারের সদস্যরা পরিচালক পদে ছিলেন। পরে ২০০৮ সালে ওই প্রতিষ্ঠান বিলুপ্ত হয়ে যায়।

অভিনেত্রী ঐশ্বরিয়া রাই গণমাধ্যম বিষয়ক উপদেষ্টা এসব দলিলপত্রের বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। তিনি বলেছেন, এসমস্ত খবর সম্পূর্ণ অসত্য।

BBC+

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY