আকর্ষণীয় সেলফি পেতে করণীয়

0
186
গত কয়েক বছরে সেলফি নিয়ে সারা বিশ্বে বেশ বড় রকমের একটা উন্মাদনা তৈরি হয়েছে। যে কারণে এখন স্মার্টফোন কেনার আগে ব্যবহারকারী ফ্রন্ট ক্যামেরাকে গুরুত্ব দেন বেশি। তবে ক্যামেরা ভালো হলেই ভালো সেলফি পাওয়া যায় না। এর জন্য অবলম্বন করতে হয় কিছু কৌশল। সেলফি তুলতে বিশেষজ্ঞদের দেওয়া ১০ কৌশল নিয়ে এই প্রতিবেদন।
১. সেলফি তোলার সময় আলোর বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে। কারণ, সেলফির গুণগত মান ঠিক রাখতে আলোর ঔজ্জ্বলতা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। নয়তো ফ্লাশের ঝলকানির মতো চেহারাও ঝলসে যাবে।
২. ক্যামেরার অ্যাঙ্গেল একটু সাইড করে নিয়ে ছবি নিতে হবে। যাতে বিপরীতে কিছু ছায়া পড়ে। এতে আপনার মুখ স্পষ্ঠ বোঝা যাবে।
৩. আলোকে সরাসরি পেছনে রেখে সামনে থেকে ছবি তোলা যেতে পারে। তবে ক্যামেরা ও আলোর মাঝখানে ফেস রাখতে হবে।
৪. ছবিটিকে সম্পাদনা (এডিট) করার জন্য অসংখ্য অ্যাপ রয়েছে। এসব অ্যাপ ব্যবহার করে একটি বাজে ছবিকেও ঠিকঠাক করে ফেলা যায়। আর সম্পাদনা করার হাত ভালো হলে কেউ বুঝতেই পারবে না যে ছবিটি সম্পাদনা করা ।
৫. ছবি এডিটিং খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ ভালো ছবিতেও এডিট করতে হয়। এ জন্য একজন এক্সপার্টকে কাজে লাগাতে পারেন।
৬. বন্ধুদের নিয়ে একসঙ্গে সেলফি তুললে সেটা সবচেয়ে ভালো হয়। জর্জিয়ার ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির এক গবেষণায় বলেছে, বন্ধুদের সঙ্গে ছবি তুললে আপনার ভাবমূতি ৩৮ শতাংশ বেশি ফুটে উঠে।
৭. আপনার ফোনের পেছনের ক্যামেরাটিকেই বেশি ব্যবহার করুন। কারণ পেছনের ক্যামেরাটিই মূল ক্যামেরা এবং এতে ছবি অনেক ভালো আসে।
৮. আর যদি আইফোন ৫ থাকে তবে তো কথাই নেই। এর মূল ক্যামেরার ছবির কোনো জুড়ি নেই। আইফোন ৫ এর পেছনের ক্যামেরা দিয়ে ছবি তোলা অনেক সহজ।
৯. সেলফি নিতে ব্যাকগ্রাউন্ডের কথা যেন ভুল করেও ভুলে যাবেন না। এতে ছবিটি নান্দনিকতা পাবে। মনে রাখবেন, ছবি কেমন হবে তা নির্ভর করে ব্যাকগ্রাউন্ড কতো ভালো তার উপর।
১০. ব্যাকগ্রাউন্ড কোন দর্শণীয় স্থান হলে আপনার চেহারাটি ব্যাকগ্রাউন্ডের সঙ্গে সেট করে নিন। এতে ব্যাকগ্রাউন্ড স্পষ্ট হয়ে উঠবে এবং ছবিটির আবেদনও ফুটে উঠবে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY