কারাগারে বরখাস্তকৃত মেয়র বুলবুল

0
531

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের বরখাস্তকৃত মেয়র বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের জামিনের আবেদন নাকচ করে তাকে জেলহাজতে পাঠিয়েছেন রাজশাহীর আদালত। রোববার সকালে বুলবুল আদালতে আত্নসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করলে দুপুরে আদালত এ আদেশ দেন।

বুলবুলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় মোট ৯টি মামলা দায়ের হয়েছে। এসব মামলায় হাজিরা না দেওয়ায় প্রত্যকটিতেই তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি ছিল।

সবশেষ গত ৭ মার্চ রাজশাহী চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহমান সরকারী কাজে বাঁধাদানের একটি মামলায় বহিষ্কৃত মেয়র বুলবুলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন।

এদিকে রোববার সকালে মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল সবক’টি মামলায় আত্নসমর্পণ করে তার পক্ষে তার আইনজীবিরা জামিনের আবেদন করলে আদালত ৩টি মামলায় জামিন আবেদন নাকচ করেন এবং জামিন দেন একটিতে। তবে আরো ৫টি মামলার ব্যাপারে আদালত এখনো কোনো সিদ্ধান্ত জানাননি। আদালত বলেছেন, এসব মামলার সমস্ত নথি দেখে পরবর্তীতে আদেশ দেয়া হবে।

এর আগে বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে রাসিকের বরখাস্তকৃত মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল মহানগর চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট মিজানুর রহমানের আদালতে আত্নসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্ত না জানিয়ে আদালত বরখাস্তকৃত মেয়রকে মহানগর কোর্ট হাজতে পাঠান।

পরে বেলা ১২টার দিকে তাকে মহানগর দায়রা জজ মোহাম্মদ আলতাফ হোসাইনের আদালতে তোলা হয়। সেখানেও তার পক্ষে তার আইনজীবিরা জামিনের আবেদন করেন।

এরপর বরখাস্তকৃত মেয়র বুলবুলকে মহানগর মেট্রোপলিটন আদালত-৩ এর ‘প’ অঞ্চলের ম্যাজিষ্ট্রেট জাহিদুল ইসলামের আদালতে তোলা হয়। সেখানে জামিনের আবেদন নামঞ্জুর হওয়ায় তাকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে নেয়া হয়।

বরখাস্তকৃত মেয়র বুলবুলের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন মহানগর দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আবদুস সালাম।

Bulbul-2

২০১৫ সালের জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত বিএনপি জোটের অবরোধ-হরতালে নাশকতার ৯টি মামলার আসামি হন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচিত মেয়র বুলবুল। এর মধ্যে চারটিতে তার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দিয়েছে পুলিশ। এই চারটি মামলার মধ্যে রাজশাহীতে পুলিশ সদস্য সিদ্ধার্থ হত্যা মামলাও রয়েছে।

ওদিকে একের পর এক মামলা দায়ের হওয়ার সময় থেকেই পলাতক ছিলেন বুলবুল। পরে গত বছরের ৭ মে পলাতক থাকা অবস্থায় তাকে মেয়র পদ থেকে বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের ওই বহিষ্কার আদেশে বলা হয়েছিল, ‘মেয়র বুলবুলের বিরুদ্ধে চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালাতে চার্জশিট দাখিল হওয়ায় সিটি করপোরেশন আইনের ১২ (১) ধারা মোতাবেক তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।’

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY