আবারও কমালো মেয়াদি আমানতের সুদের হার

0
126

আবারও মেয়াদি আমানতের সুদ হার কমিয়েছে রাষ্ট্রীয় ব্যাংকগুলো। গত ৩ মার্চ থেকে এটি কার্যকর হয়েছে। মূল্যস্ফীতি কমায় এবং বিনিয়োগের সুযোগ কম থাকায় এক মাসের ব্যবধানে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টদের ধারণা। এর আগে গত ৩১ জানুয়ারি সোনালী, জনতা, অগ্রণী, রূপালী, বেসিক ও বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক আমানতের সুদ হার ৮ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৭ শতাংশ নির্ধারণ করে। ওই সময় ঋণের সুদ হারও কমানো হয়। তবে এবার আমানতের সুদ হার কমানো হলেও ঋণের সুদ হার অপরিবর্তিতই রেখেছে ব্যাংকগুলো। মেয়াদি আমানতে আমানতকারীরা রাষ্ট্র মালিকানাধীন ব্যাংকগুলো থেকে সর্বোচ্চ ৬ দশমিক ৫০ শতাংশ সুদ পাবেন। এ বিষয়ে রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম ফরিদউদ্দিন সাংবাদিকদের জানান, বাজারের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে আমানতের সুদ হার কমানো হয়েছে। সম্প্রতি মূল্যস্ফীতি কমেছে। এ জন্য ঋণের সুদ হারের পাশাপাশি আমানতের সুদ হার কমানো হলো। এছাড়া উচ্চহারে আমানত নিয়ে তা অলস বসিয়ে রাখা ব্যাংকের পক্ষে সম্ভব নয়। আমানতের সুদ হার কমানোর এটিও একটি কারণ বলে উল্লেখ করেন তিনি। নতুন সুদ হার অনুযায়ী তিন মাস বা তার বেশি কিন্তু ছয় মাসের কম, এমন আমানতের বেলায় সুদ হার ১ শতাংশ পর্যন্ত কমানো হয়েছে। ছয় মাস বা তার বেশি কিন্তু এক বছরের কম সময়ের আমানতের সুদ হার দশমিক ৭৫ শতাংশ পর্যন্ত কমিয়েছে ব্যাংকগুলো। আর এক বছর বা তার বেশি কিন্তু সর্বোচ্চ তিন বছর মেয়াদি আমানতে সুদ হার দশমিক ৫০ শতাংশ থেকে দশমিক ৭৫ শতাংশ কমিয়েছে। এছাড়া কয়েকটি ব্যাংকে স্বল্প মেয়াদি বড় আমানত (২৫ কোটি থেকে বেশি) এর সুদ হার ১ শতাংশ কমানো হয়েছে

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY